×
South Asian Languages:
রাজনীতি 19 জানুয়ারী 2013
এই সপ্তাহে ইসলামাবাদে ছিল প্রবল উত্তেজনা, যেখানে লক্ষ লক্ষ মানুষের মার্চের সাথে মাঝে মধ্যেই পুলিশের সংঘর্ষ হচ্ছিল. আরব্য বসন্তের সূচনা হওয়ার রটনাও ছড়াচ্ছিল. কিন্তু শুক্রবার আন্দোলনকারীদের প্রধান নেতা তাহির কাদ্রি ঘোষনা করেছেন, যে দেশের শাসকরা তাদের সব দাবীদাওয়া মেনে নেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে. পাকিস্তানে লক্ষ লক্ষ মানুষ আন্দোলনে সামিল হয়েছিল.
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র শেষপর্যন্ত সেনকাকু দ্বীপপুঞ্জকে নিয়ে চীন ও জাপানের বিতর্কে জাপানের পক্ষ নিয়েছে. ওয়াশিংটনে জাপানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে যৌথ সাংবাদিক সম্মেলনে মার্কিনী বিদেশসচিব হিলারি ক্লিনটন বলেছেন, যে একপাক্ষিক কোনো ব্যবস্থা নিয়ে ঐ দ্বীপপুঞ্জের ওপর জাপানের শাসনকে নস্যাত করার চেষ্টা মেনে নেওয়া হবে না. ক্লিনটন বলেছেন – আমরা চাই, যাতে চীন ও জাপান শান্তিপূর্ণ সংলাপের মাধ্যমে এই সমস্যার সমাধান করে.
উত্তর কোরিয়ার বিরূদ্ধে নিষেধাজ্ঞা জারী করার প্রশ্নে চীন ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে রফা হয়েছে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের পক্ষ থেকে এই বিষয়ে ঘোষনাপত্র গ্রহণ করার ব্যাপারে. শীঘ্রই ঐ ঘোষনাপত্রের খসড়া পাঠানো হবে নিরাপত্তা পরিষদের ১৫ টি সদস্য দেশের সবাইকে. তবে কূটনীতিজ্ঞরা বলছেন, যে নতুন কোনো নিষেধাজ্ঞা প্রস্তাব করা হয়নি, জারি থাকা নিষেধাজ্ঞাগুলি সম্প্রসারিত করা হয়েছে মাত্র.
জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ দোষী সন্ত্রাসবাদীদের ধরে প্রাপ্য শাস্তি দেওয়ার জন্য আলজেরিয়াকে সাহায্য করার আহ্বাণ জানাচ্ছে বিশ্ব জনসমাজের কাছে. জাতিসংঘের সদরদপ্তরে বিতরন করা ঘোষনাপত্রে বিশেষ করে উল্লেখ করা হয়েছে অপরাধীদের, তাদের সংগঠকদের ও পৃষ্ঠপোষকদের আদালতের কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়ে প্রাপ্য শাস্তি দেওয়ার অপরিহার্যতার কথা. বুধবার সন্ত্রাসবাদীরা পেট্রোকেমিক্যাল কারখানায় অনুপ্রবেশ করে শয়ে শয়ে কর্মচারীকে বন্দী করেছে.
যাতে নিরীহ অসামরিক লোকজন মারা না যায়, সেজন্য আলজেরিয়ার শাসকদের অত্যন্ত সতর্কতার সাথে ইন-আমেনাসে পেট্রোকেমিক্যাল কারখানায় বন্দীদের মুক্ত করার অভিযান চালানো উচিত. শুক্রবার মার্কিনী বিদেশসচিব হিলারি ক্লিনটন এই মন্তব্য করেছেন. এই বড়মাপের সন্ত্রাসবাদী আক্রমণের বিষয়ে ক্লিনটন তিন-তিনবার টেলিফোন যোগে আলজেরিয়ার প্রধানমন্ত্রী আব্দেলমালেক সেল্লামের সাথে কথাবার্তা বলেছেন. আলজেরিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্বীকার করেছেন, যে পরিস্থিতি এখনো নড়বড়ে, পণবন্দীদের জীবননাশের ঝুঁকি এখনো থেকেই যাচ্ছে.
আলজেরিয়ার ইন-আমেনাসের পেট্রোকেমিক্যাল কারখানায় সন্ত্রাস প্রতিরোধ অভিযান শুরু হওয়ার পর থেকে এখনো পর্যন্ত ১২ জন পণবন্দী খুন হয়েছে. অভিযান এখনো চলছে. বুধবার জঙ্গীরা প্রতিবেশী দেশ লিবিয়া থেকে গোপনে আলজেরিয়ায় ঢুকে ঐ পেট্রোকেমিক্যাল কারখানায় কর্মরত বিদেশীদের বন্দী করে.
জানুয়ারী 2013
ঘটনার সূচী
জানুয়ারী 2013