×
South Asian Languages:
রাজনীতি 30 জানুয়ারী 2011
মিসর ভ্রমন প্রত্যাখানকারী রুশি পর্যটকদের রাশিয়ার পর্যটন প্রতিষ্ঠানসমূহ ক্ষতিপূরন প্রদান করবে.ক্ষতিপূরন হিসাবে অর্থ ফেরত অথবা অন্য কোন দেশ ভ্রমনের ব্যবস্থা করা হবে.শনিবার ক্রিড়া ও পর্যটন মন্ত্রনালয়ে এক সভা শেষ রাশিয়ার পর্যটন প্রতিষ্ঠানসমূহ এ সিদ্ধান্ত নেয়.পর্যটকদের কোন পদ্ধতিতে ক্ষতিপূরন দেওয়া হবে সে বিষয়টি হয়ত আজ রোববার অথবা আগামী সপ্তাহে চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে.
রোবরাতে লুটতরাজ ও হত্যাকান্ডোর ঘটনার পর বিদেশি দুতাবাসগুলো মিসর থেকে নিজেদের নাগরিকদের সরিয়ে নিচ্ছে.তুরষ্ক জরুরিভিত্তিতে ২টি বিমান পাঠিয়েছে এবং সৌদি আরব ৮টি ফ্লাইট বরাদ্ধ করেছে.ইজরাইলের দুতাবাসের কর্মকর্তাদের পরিবারের সদস্যরা ইতিমধ্যে কায়রো ত্যাগ করেছেন ও সোমবার জার্মানী তাদের দুতাবাসের কর্মকর্তাদের সরিয়ে নেওয়া হবে.একই সংকেত দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র,আজারবাইজানসহ অন্যান্য দুতাবাস.
ভারতীয় নৌবাহিনী ও উপকূলীয় নিরাপত্তকর্মীরা আরব সাগরে যৌথ অভিযান চালিয়ে  জলদস্যুদের একটি ট্রলার ডুবিয়ে দিয়েছে.এ ঘটনায় ১৫ জন অপরাধীকে গ্রেফতার ও থাইল্যান্ড ও বার্মার মোট ২০ জন জেলেকে মুক্ত করা হয়.ভারতীয় নৌবাহিনার বরাত দিয়ে হিন্দুস্তান টাইমস এ খবর জানায়.সংবাদে জানানো হয় যে,এই অভিযান পরিচালনা করা হয় লাকশাদভিপ নামক ভারতীয় জল সীমার দক্ষিন-পূর্ব আরব সাগরে.
মিসরে এখনও থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে.২৫ জানুযারী থেকে শুরু হওয়া বিক্ষোভ যা সপ্তাহের শেষে মারাত্বক আন্দোলনে রুপ নিয়েছে. শনিবার পরিস্থিতি ছিল অত্যন্ত ভয়াবহ.রাজধানী কায়রো এবং অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ শহরের রাজপথে বিক্ষোভ অব্যহত থাকে.সরকারবিরোধী বিক্ষোভ যা জাতীয় আন্দোলনের পরিনত হয়েছে.এই সুযোগে অনেক চোর ও হত্যাকারী ফায়দা লুটেছে.
মিসরে বর্তমান পরিস্থিতি এখনও সংকটজনক অবস্থায় রয়েছে.টানা ৫ দিন ধরে পুলিশের সাথে আন্দোলনরত জনতার সংঘর্ষে নিহতের সংখ্যা ১০০ জনে উন্নীত হয়েছে.কঠোর হুঁশিয়ারী সত্বেও পুলিশ এবং সেনাবাহিনী পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে ব্যর্থ হয়.কায়রোতে কারফিউ জারি করা হলেও তা বিক্ষোভকারিদের হঠাতে পারছে না.গতকাল রাতে মিসরের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয় ভবনে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়.রাজপথ যেন সিনেমার দৃশ্যে পরিনত হয়েছে.
জানুয়ারী 2011
ঘটনার সূচী
জানুয়ারী 2011