×
South Asian Languages:
রাজনীতি 9 ডিসেম্বর 2010
ন্যাটো জোট ও রাশিয়া পরস্পরকে বিপন্ন করছে না, বলেছেন ন্যাটো জোটের প্রধান সচিব আন্দের্স ফগ রাসমুসেন. ইউরোসঙ্ঘের দেশগুলির প্রতিরক্ষামন্ত্রীদের সাথে বেসরকারী সাক্ষাতের পরে ব্রাসেলসে এক বক্তৃতায় তিনি মস্কোর সাথে বাস্তব স্ট্র্যাটেজিক শরিকানা বিকাশে ন্যাটো জোটের প্রস্তুতির কথা আবার জোর দিয়ে বলেন. রাসমুসেন উল্লেখ করেন, এ কথা আমাদের নতুন স্ট্র্যটেজিক ধারণাতে এবং লিসবনে সাম্প্রতিক রাশিয়া-ন্যাটো শীর্ষ সাক্ষাতের ঘোষণাপত্রে সূত্রবদ্ধ.
হ্যাকারদের ব্যাপক আক্রমণের ফলে আজ “ভিসা” হিসেব ও ব্যাঙ্ক ব্যবস্থার ইন্টারনেট সাইট অচল হয়ে গিয়েছে. নেটওয়ার্কে এমন ঘটনা বিগত ২৪ ঘন্টায় আরও একটি ঘটনা, যার ফলে আরও একটি কোম্পানির ইন্টারনেট পৃষ্ঠা অচল হয়েছে, যে কোম্পানি এ সপ্তাহে “উইকিলিক্স” সংস্থার সাথে কাজ করতে অস্বীকার করেছে.
রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দমিত্রি মেদভেদেভের আসন্ন ভারত সফরের সময় ১৫টি পর্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ চুক্তি স্বাক্ষরিত হবে. দিল্লিতে রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত আলেক্সান্দর কাদাকিন "নেজাভিসিমায়া গাজেতা" পত্রিকাকে প্রদত্ত ইন্টারভিউতে ব্যাখ্যা করে বলেন যে, প্রস্তুত করা দলিলগুলি দ্বিপাক্ষিক পারস্পরিক সম্পর্কের বাস্তবিকপক্ষে সমস্ত ক্ষেত্রকে স্পর্শ করে. এর মধ্যে আছে বাণিজ্যিক-অর্থনৈতিক ও সামরিক সহযোগিতা, "গ্লোনাস" ব্যবস্থার প্রবর্তন, পঞ্চম প্রজন্মের ফাইটার বিমান নিয়ে মিলিত কাজ ইত্যাদি.
রাশিয়া ও ন্যাটো জোট ১৬ই ডিসেম্বর রকেটবিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা সম্পর্কে বিশেষজ্ঞদের সাক্ষাত্ আয়োজন করবে. এ সম্বন্ধে বুধবার রাতে জানিয়েছেন ন্যাটো জোটে রাশিয়ার স্থায়ী প্রতিনিধি দমিত্রি রগোজিন, রাষ্ট্রদূতদের পর্যায়ে এ বছরে রাশিয়া-ন্যাটো পরিষদের শেষ বৈঠকের ফলাফল সম্পর্কে. তিনি বলেন, “আমরা সমঝোতায় এসেছি যে, ১৬ই ডিসেম্বর ব্রাসেলসে রাজধানী থেকে আসা বিশেষজ্ঞদের অংশগ্রহণে রকেটবিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা সংক্রান্ত কর্মীদলের বৈঠক হবে.
রাশিয়া, বেলোরুশিয়া ও কাজাখস্তানের রাষ্ট্রপতিরা আজ মস্কোয় সমবেত হচ্ছেন শুল্ক সঙ্ঘ এবং একক অর্থনৈতিক এলাকার নিয়ম ও বিধানিক বনিয়াদ গঠন সুদৃঢ় করার জন্য. দমিত্রি মেদভেদেভ, আলেক্সান্দর লুকাশেনকো এবং নুরসুলতান নজরবায়েভের এ সাক্ষাত্ হচ্ছে ইউরেশীয় অর্থনৈতিক সহযোগিতা পরিষদের বৈঠকের কাঠামোতে.
তুর্কমেনিস্তান-আফগানিস্তান-পাকিস্তান-ভারত (তাপি) গ্যাস পাইপলাইন নির্মাণ সংক্রান্ত চুক্তি স্বাক্ষরিত হবে আশখাবাদে ১১ই ডিসেম্বর. চুক্তি স্বাক্ষরের সমারোহে প্রথম তিনটি দেশের প্রতিনিধিত্ব করবেন রাষ্ট্রপতিরা, আর ভারতীয় পক্ষের- তেল ও গ্যাস সংক্রান্ত মন্ত্রী.
রাশিয়া ও ভারত সামরিক পারস্পরিক ক্রিয়াকলাপ সক্রিয় করার ব্যাপারে সমঝোতায় এসেছে- ২০১১ সালে তিন ধরণের বাহিনীর সমাহারিক মহড়া অনুষ্ঠিত হবে. এ সম্বন্ধে নয়া-দিল্লিতে সাংবাদিকদের বলেছেন রাশিয়ার সশস্ত্র বাহিনীর সদর দপ্তরের অধিকর্তা জেনারেল নিকোলাই মাকারোভ. তাঁর কথায়, “ইন্দ্র-২০১১” মহড়ায় অংশগ্রহণ করবে স্থলবাহিনী, নৌবাহিনী এবং বিমান বাহিনী.
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30 31
ডিসেম্বর 2010
ঘটনার সূচী
ডিসেম্বর 2010
4
18
25