১. মস্কো ক্রেমলিনের যাদুঘর গুলিতে এক সময়ে রুশ দেশে থেকে কাজ করা বিশ্ব বিখ্যাত অলঙ্কার শিল্পী কার্ল ফাবের্জে ও বিখ্যাত কার্টিয়ে কোম্পানীর শিল্প নিদর্শন গুলির প্রদর্শনী খেলা হয়েছে. এই প্রদর্শনীর জন্য জিনিস গুলিকে সারা রাশিয়া থেকেই যোগাড় করা হয়েছে. এখানে যেমন, মস্কো ও সেন্ট পিটার্সবার্গের সংগ্রহশালা থেকে আনা জিনিস রয়েছে, তেমনই উরাল ও সাইবেরিয়ার বিভিন্ন যাদুঘর থেকে নিয়ে আসা জিনিসও রয়েছে. তাছাড়া রয়েছে ব্যক্তিগত সংগ্রহ থেকে পাওয়া জিনিসও. বিশেষ করে এখানে মূল্য দেওয়া হয়েছে ফাবের্জে তৈরী ইস্টার উত্সবের উপলক্ষে তৈরী ডিম – যা ঐতিহ্য অনুযায়ী রুশ দেশে বহু কাল ধরে ইস্টার উত্সবের সময়ে উপহার হিসাবে দেওয়া হত. ফোটোতে: ইস্টার উপলক্ষে উপহারের ডিম – ১৯১৭ সালে তৈরী "রাজপুত্রের তারকা মন্ডল", ফার্বেজের কোম্পানীর তৈরী.

২. এই প্রদর্শনীর পরিচালক তাতিয়ানা মুন্তিয়ান বলেছেন যে, এই প্রদর্শনীতে ৪০০টিরও বেশী শিল্পের নিদর্শন রয়েছে, যা আঠেরো শতকের মধ্য ভাগ থেকে বিংশ শতাব্দীর প্রারম্ভ কাল পর্যন্ত সময় সীমায় নির্মিত. অর্ধেকের বেশী প্রদর্শনীর জিনিস ফাবের্জের কোম্পানীর, তার মধ্যে অনেক গুলিই রাশিয়ার তখনকার সব সম্রাট ও রাজাদের নামে তৈরী, যেমন ঘড়ি, ছড়ি ইত্যাদি. ফোটোতে: তৃতীয় আলেকজান্ডারের স্মৃতি স্তম্ভের মডেল সহ ইস্টার উত্সবের ডিম.

৩. প্রদর্শনীতে ইস্টারের ডিম ও খুবই সুন্দর ফুল রয়েছে, তাতে বৃন্ততে ছোট ফল রয়েছে, যে সমস্ত ফুলদানীতে এই ফুল রয়েছে, সেগুলি পাহাড়ী স্ফটিক দিয়ে তৈরী, যেন তাতে জল ভর্তি মনে হয়, আর ছোট্ট গাছ. ফোটোতে: ফুলের তোড়া (১৭৪০ এর দশকে তৈরী).

৪. এই প্রদর্শনীর একটি আগ্রহ জাগানোর মতো নিদর্শন হয়েছে বিখ্যাত ফরাসী কোম্পানী "কার্টিয়ে" তে তৈরী জিনিস, যা রুশ নামী ভাস্কর ও অলঙ্কার শিল্পীদের পাথর কেটে কাজের প্রভাবে করা হয়েছিল. তাদের প্রভাবেই ফরাসী অলঙ্কার শিল্পীরা নিজেরা ফুল ও জন্তু জানোয়ারের আকৃতি তৈরী করা শুরু করেছিল. ফোটোতে: ফরাসী বুল ডগের আকৃতি. সেন্ট পিটার্সবার্গ. উনবিংশ শতকের শেষ – বিংশ শতকের শুরু. কার্ল ফাবের্জের কোম্পানীতে তৈরী.

৫. এই প্রদর্শনীতে দর্শকেরা রুশ ও ফরাসী শিল্প ধারায় তৈরী জিনিসের মধ্যে তুলনা করার সুযোগ পেয়েছেন, রুশ ও ফরাসী অলঙ্কার শিল্পীদের কাজের তফাত দেখতে পেয়েছেন. ফোটোতে: রুশ সম্রাজ্ঞী আলেকসান্দ্রা ফিওদরভনার প্রার্থনার বই, ১৮৯৬ সালে তৈরী.

৬. প্রদর্শনীতে যেমন একেবারেই বিরল জিনিস দেখানো হচ্ছে, যা রুশ সম্রাটের মহলের বায়নাতে তৈরী হয়েছিল, তেমনই আরও প্রসারিত ভাবে বিক্রী হওয়া জিনিসও রয়েছে. ফোটোতে: ইস্টারের ডিম প্রমোদ তরণীর মডেল সহ. সেন্ট পিটার্সবার্গ, ১৯০৮ সাল. কার্ল ফাবের্জের কোম্পানী.

৭. প্রদর্শনীর কেন্দ্রে রয়েছে – ছটি সম্রাটের ইস্টারের ডিম, ফার্বেজের তৈরী করা ও তাঁর শিল্প উত্কর্ষের সেরা নিদর্শন. যাদুঘর গুলি একই সঙ্গে উপস্থিত করেছে অন্যান্য পাথর দিয়ে তৈরী করা জিনিস দারুণ সমস্ত সুক্ষ কাজের পেয়ালা, লেখার জন্য দোয়াত কলম, ফুলদানী ও বিশ্বে একমাত্র অলঙ্কারের প্রদর্শনী, যা "ফার্বেজের" কোম্পানীর প্রধানের ব্যক্তিগত সংগ্রহের জিনিস. ফোটোতে: আলেকজান্ডারের প্রাসাদের মডেল সহ ইস্টারের ডিম. সেন্ট পিটার্সবার্গ, ১৯০৮ সাল, কার্ল ফাবের্জের কোম্পানীর তৈরী.

৮. আলাদা করে এখানে দেখানো হবে অলঙ্কার যা মূল্যবান পাথরের তৈরী ও ফাবের্জে কোম্পানীর বিশ্ব বিখ্যাত জিনিস ও ব্যক্তিগত সংগ্রহ থেকে খুবই খুঁটিয়ে জোগাড় করা "বোলিন" ও "আর্নড" কোম্পানীর তৈরী অলঙ্কার শিল্পের নিদর্শন.

৯. পাথর কেটে তৈরী করা এই সমস্ত কাজের প্রদর্শনী. তার বিশাল বিস্তার ও বহু রকমের উদাহরণ সমেত হলেও তা একেবারেই কক্ষে বন্দী, চারু কলার ও বহু রঙের এক প্রদর্শনী, আর তা একই সঙ্গে বিখ্যাত সমস্ত শিল্পীর করা কাজ  - ফাবের্জে, উরালের দেনিসভ, কার্তিয়ে ও কনভালেঙ্কো. ফোটোতে: মহিলার আকৃতি, সেন্ট পিটার্সবার্গ, উনবিংশ শতকের শেষ – বিংশ শতকের শুরু. কার্ল ফাবের্জের কোম্পানীর তৈরী.

0