রাশিয়ার কেন্দ্রীয় রাজ্যে দাবানল আজ বেশ কয়েক সপ্তাহ ধরে জ্বলছে. বিশাল সংখ্যক লোক দেশের সমস্ত কোণ থেকে আগুণ নেভানোর কাজে নিরত রয়েছেন. প্রধানমন্ত্রী ভ্লাদিমির পুতিন নিজেও এই প্রাকৃতিক বিপর্যয় নিরসনের কাজে সক্রিয় ভাবে অংশ নিয়েছেন.মন্ত্রী সভার প্রধান রিয়াজান রাজ্যে দাবানল নেভানোর কাজে উভচর বিমান বে – ২০০ তে চড়ে গিয়েছেন.মন্ত্রীসভার প্রধান আধ ঘন্টার উড়ানে নিজে পাইলটের কেবিনে দ্বিতীয় পাইলটের স্থান নিয়েছেন এবং ওকা নদী থেকে বিমানে জল সংগ্রহ ও রিয়াজানের উপকণ্ঠে আগুণ জ্বলা বনের উপর সেই জল ঢেলেছেন.প্রধানমন্ত্রীর তত্ত্বাবধানে উড়ানের সময় বে – ২০০ বিমান দুই বার জল তুলেছে ও জল ঢেলেছে, প্রতিবারে ১২ টন করে.ফলে দুটি আগুণ লাগা বনে আগুণ নিভেছে.প্রথমে প্রধানমন্ত্রী বিমানের ভিতরে উত্তাপ পরিমাপক যন্ত্রের সামনে বসে লক্ষ্য করেছেন, বনে কোথায় আগুণ সবচেয়ে বেশী. এই যন্ত্র দিয়ে আগুণ অনুসন্ধান ও তার গতিবিধি নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব.উড়ানের সময়ে পুতিনের সঙ্গে ছিলেন বিপর্যয় নিরসন মন্ত্রণালয়ের প্রধান সের্গেই শইগু এবং রিয়াজান অঞ্চলের রাজ্যপাল ওলেগ কভালিয়ভ.উড়ানের সময় পুতিন একই সঙ্গে লক্ষ্য করেছেন, দ্বিতীয় বে – ২০০ বিমানটি কি ভাবে কাজ করছে ও আগুণ নিভাচ্ছে.এ ছাড়া উড়ানের সময় দুটি গ্রামের কাছে আগুনের বিপজ্জনক নৈকট্য লক্ষ্য করা সম্ভব হয়েছে.অঞ্চলের রাজ্যপাল বিমান থেকে সোজা ফোন করে স্থানীয় প্রশাসনকে এই দুটি দাবানল নেভানোর জন্য ব্যবস্থা নিতে বলেছেন.