এ সংস্থায় রাশিয়ার স্থায়ী প্রতিনিধি ভাসিলি তিতুশকিন “ইতার-তাস” সংবাদ এজেন্সিকে প্রদত্ত ইন্টারভিউতে বলেন, “কথা হচ্ছে সবচেয়ে বিপজ্জনক উপাদানগুলির, যা ২০১৪ সালের ৩১শে মার্চের মধ্যে ধ্বংস করার কথা”. তিনি উল্লেখ করেন যে, রাসায়নিক অস্ত্র নিষেধ সংস্থার বিশদে নিরূপণ করা উচিত্ কে, কোথায়, কিভাবে এবং কি পরিবেশে এ সব বস্তু ধ্বংস করবে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র আগে প্রস্তাব দিয়েছিল সিরিয়ার রাসায়নিক অস্ত্রের এই অংশ মার্কিনী পতাকাবাহী জাহাজে ধ্বংস করার. রাসায়নিক অস্ত্র ধ্বংস সংস্থার সরকারী প্রতিনিধি ক্রিস্টিয়ান শার্তিয়ে-ও মনে করেন যে, পরিকল্পনা প্রকাশিত হবে, যেমন ঠিক করা হয়েছিল. সেই সঙ্গে তিনি সঠিক করে বলেন যে, “এ দলিল শুধু সবচেয়ে বিপজ্জনক রাসায়নিক বস্তুর ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে”. তিনি উল্লেখ করেন যে, অপেক্ষাকৃত কম বিপজ্জনক রাসায়নিক বস্তুর ধ্বংস নিয়ে কাজ করবে কিছু প্রাইভেট কোম্পানি, তবে “তাদের বাছাইয়ের প্রক্রিয়া সরকারীভাবে এখনও শুরু হয় নি”.