এ সম্বন্ধে অ্যাশটন সোমবার জানিয়েছেন পররাষ্ট্র বিষয়ে ইউরোসঙ্ঘের পরিষদের বৈঠক শেষ হওয়ার পরে এক সাংবাদিক সম্মেলনে. অ্যাশটন উল্লেখ করেন যে, এ সাক্ষাতে আলোচিত হবে আন্তর্জাতিক ছয় দেশ ও তেহেরানের মাঝে প্রাথমিক চুক্তি বাস্তবায়নের পরিস্থিতি, যা যত তাড়াতাড়ি সম্ভব বাস্তবায়ন করা উচিত্, যাতে আরও বুনিয়াদী চুক্তিতে উত্তীর্ণ হওয়া যায়. তিনি মনে করিয়ে দেন যে, আন্তর্জাতিক মধ্যস্থ “ছয় দেশ” ইতিমধ্যে আলোচনা করেছে সমঝোতা বাস্তবায়নে অগ্রগতি অনুযায়ী ইরানের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞার ক্রমশ বাতিলের সম্ভাবনা. অ্যাশটন সঠিক করে বলেন যে, আরাগচি-র অনুরোধে এ সাক্ষাতে উপস্থিত থাকবেন ইউরোপীয় পররাষ্ট্র বিভাগের রাজনৈতিক ডিরেক্টর হেলগা শ্মিড্ট. আরাগচি ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাওয়াদ জরিফের বার্তা হস্তান্তর করতে চান, যাঁর সাথে তাঁর নিয়মিত যোগাযোগ রয়েছে.