এ সম্বন্ধে বুধবার ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহম্মদ জাওয়াদ জরিফের সাথে সাক্ষাতে বলেছেন রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরোভ. রাশিয়ার কূটনীতিজ্ঞ মনে করিয়ে দেন যে, রাশিয়া ও ইরানের রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন এবং হাসান রৌহানি সাক্ষাত্ করেছিলেন হেমন্তে কির্গিজিয়ায় সাংহাই সহযোগিতা সংস্থার শীর্ষ সাক্ষাতের সময়. সে সময়ে তাঁরা “বিশেষ মনোযোগ দেন দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্যিক-অর্থনৈতিক ও মানবতাবাদী সহযোগিতা প্রখর করার প্রয়োজনীয়তার প্রতি”, উল্লেখ করেন লাভরোভ. রুশ-ইরানী সহযোগিতার অন্য গুরুত্বপূর্ণ ধারা হল আঞ্চলিক প্রশ্নে পারস্পরিক ক্রিয়াকলাপ, যোগ করে বলেন রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী. লাভরোভ আরও মনে করিয়ে দেন যে, তিনি এবং তাঁর ইরানী সহকর্মী বিগত এক মাসে তিনবার সাক্ষাত্ করেছেন ইরানের পারমাণবিক কর্মসূচি নিয়ে আলাপ-আলোচনার কাঠামোতে, যে সম্পর্কে অতি গুরুত্বপূর্ণ সমঝোতা অর্জন করা সম্ভব হয়েছে. জরিফের সাথে লাভরোভের সাক্ষাত্ শুরু হওয়ার আগে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি সাংবাদিকদের সাথে আলাপে এ কথা সমর্থন করেন যে, রাশিয়া ও ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের সাক্ষাতের প্রস্তুতি চালানো হচ্ছিল বহু কাল ধরে. কূটনীতিজ্ঞ বলেন যে, এ সফর তেহেরানের জেনেভা সমঝোতার সাথে প্রত্যক্ষভাবে সম্পর্কিত নয়. ইরানী পক্ষ গোটা একসারি প্রশ্ন আলোচনা করতে চায়: দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতা থেকে আঞ্চলিক এবং আন্তর্জাতিক আলোচ্য বিষয় পর্যন্ত অনেক কিছু, বলেন তিনি.