নিজের তরফ থেকে বাইডেন বলেন যে, ওয়াশিংটন পূর্ব-চীনা সাগরে আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার এলাকা স্বীকার করে না এবং বেজিংয়ের কাছ থেকে এ অঞ্চলে উত্তেজনা হ্রাসের জন্য নির্দেশিত ক্রিয়াকলাপের অপেক্ষা করছে. একই সঙ্গে, দু দেশের নেতৃবৃন্দ এ সাক্ষাতে চীন ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মাঝে সংলাপ, বিনিময়ও সহযোগিতা বাড়ানো এবং নতুন ধরমের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক গড়ে তোলার প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে একমত প্রকাশ করেন. এ সাক্ষাতের সময় পক্ষদ্বয় তাছাড়া মত-বিনিময় করেন এবং কোরিয়া উপদ্বীপ, ইরানের পারমাণবিক সমস্যা, সিরিয়ার সমস্যার মতো বিষয়ে যোগাযোগ ও পারস্পরিক ক্রিয়াকলাপ বাড়ানোতে সম্মত হয়েছেন.