পুলিশ জানায়, মঙ্গলবার মাত্র ১ ঘন্টার মধ্যে করাচিতে ৭ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। এদের মধ্যে ৫ জনের লাশ পাওয়া যায় করাচির নাজিমবাদ এলাকায়। অজ্ঞাত পরিচয় বন্ধুকধারীরা একটি প্রাইভেটকারকে লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়লে এ প্রাণহানির ঘটনা ঘটে। এর আগে অস্ত্রধারীদের হামলায় দুই বিদেশি শিক্ষার্থী নিহত হয়। করাচির আরেক এলাকায় অজ্ঞাত বন্ধুকধারীদের হামলায় তাবলেগি জামাত দলের ৩ জন নিহত হয়।

এছাড়া পাকিস্তানের লানদহি ও কারানগিসহ অন্যান্য এলাকায় বন্ধুকধারীদের হামলায় অন্তত ৩ জন নিহত হয়।