এ সফরের সময় তিনি চীনের সভাপতি সি জিনপিনের সাথে এবং চীনের রাষ্ট্রীয় পরিষদের প্রধানমন্ত্রী লি কেজিয়ানের সাথে আলাপ-আলোচনার পরিকল্পনা করছেন. ক্যামেরন বেজিং ছাড়া সাংহাই এবং চেন্ডু শহর সফর করবেন. বৃটিশ প্রধানমন্ত্রীর চীন সফর হওয়ার কথা ছিল এক বছর আগে, কিন্তু তা স্থগিত রাখা হয়েছিল ২০১২ সালের মে মাসে বৃটিশ রাজধানীতে তিব্বতের প্রবাসী ধর্মীয় নেতা দালাই-লামার সাথে সাক্ষাতের পরে. ২০১২ সালের বসন্ত থেকে দু দেশের সম্পর্ক স্থগিত থাকার ফলে বৃটিশ ব্যবসা ক্ষেত্রের যথেষ্ট ক্ষতি হয়েছিল. চীনে পণ্য ও সার্ভিসের মোট আমদানিতে তার অংশ কমেছিল ১ শতাংশ পর্যন্ত. বেজিংয়ে রওনা হওয়ার আগে ক্যামেরন বলেন যে, ২০১৫ সাল নাগাদ চীনের সাথে পণ্য-আবর্তন দু গুণ বাড়িয়ে ৬২০০ কোটি পাউন্ড স্টার্লিং (১০ হাজার কোটি ডলার) পর্যন্ত পৌঁছোনোর লক্ষ্য স্থাপন করেছেন. তাঁর সফর শেষ হবে ৪ঠা ডিসেম্বর.