আফগানিস্তানের জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকের অব্যবহতি পরেই এই প্রকাশ্য ঘোষণা করা হয়েছে. যেহেতু আফগানিস্তান আমেরিকার দেওয়া শর্তে দেশের নিরাপত্তা বিষয়ক দ্বিপাক্ষিক চুক্তি স্বাক্ষর করতে অস্বীকার করছে, তাই কাবুল প্রশাসনের উপর চাপ সৃষ্টি করার জন্য আমেরিকা জ্বালানী ও যন্ত্রপাতি সরবরাহে ব্যাঘাত ঘটাচ্ছে বলেই মনে করছে আফগানী জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদ.

আফগানিস্তানে অবস্থানরত ন্যাটোর সামরিক শক্তিবাহিনীর মুখপাত্র এই অভিযোগ খন্ডন করে বলেছেন যে, সরবরাহ ব্যবস্থা আগের মতোই কাজ করছে. ইতিপূর্বে আফগানিস্তানের রাষ্ট্রপতি হামিদ কারজাই ২০১৪ সালে অনুষ্ঠিতব্য রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের আগে এই চুক্তি স্বাক্ষর না করার সিদ্ধান্তের কথা মার্কিনীদের জানিয়ে দিয়েছিলেন.