সাবেক উপপ্রধানমন্ত্রী ও বিরোধী দল ডেমোক্র্যাট পার্টির নেতা সুথেপ থাংসুবান জানান, বিরোধীদল প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় দখল করবে। বাংককের গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর অবস্থিত। ভবনের নিরাপত্তায় পুলিশ ও সেনাবাহিনকে মজুদ করা হয়েছে।

এদিকে বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ কাঁদুনে গ্যাস ব্যাবহার করে। থাই পিভিএস নামের একটি রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন কেন্দ্রের পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে বিরোধীদল।

উল্লেখ্য, থাই প্রধানমন্ত্রী ইংলাক সিনাওয়াত্রার পদত্যাগের দাবিতে বিক্ষোভ করছে দেশটির বিরোধীদল। ইতিমধ্যে এ আন্দোলনে বিক্ষোভকারীদের সাথে পুলিশের সংঘর্ষে ২ জন নিহত ও ৪৫ জন আহত হয়েছে।