এ সম্বন্ধে শুক্রবার জানিয়েছে বেলজিয়ামের প্রচার মাধ্যম গোয়েন্দা তথ্যের উদ্ধৃতি দিয়ে, যা প্রকাশ করেছেন সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে সংগ্রাম সংক্রান্ত নরওয়ের বিশেষজ্ঞ থমাস হেগহ্যামার. তাঁর তথ্য অনুযায়ী, ইউরোপ থেকে সিরিয়ায় লড়াই করতে যায় প্রধাণত ফ্রান্স, জার্মানি, গ্রেট-বৃটেন এবং বেলজিয়ামের নাগরিকরা. বিশেষজ্ঞের তথ্য অনুযায়ী, সিরিয়ার বিরোধীপক্ষের সারিতে রয়েছে ১০০ থেকে ৩০০ তরুণ বেলজিয়ান. তাদের এ দেশে পাঠানো হয়েছিল দেশে নিষিদ্ধ “বেলজিয়ামের জন্য শরিয়ত” (Sharia4Belgium) নামে রাডিক্যাল ইস্লামিক আন্দোলনের সাহায্যে. বেলজিয়ামের কর্তৃপক্ষ আগে সিরিয়ার বিরোধীপক্ষের হয়ে লড়াইয়ে তরুণ বেলজিয়ানদের ভবিষ্যত্ অংশগ্রহণ নিবারণের উদ্দেশ্যে একসারি ব্যবস্থা প্রণয়নের কথা ঘোষণা করেছিল.