এ অনাস্থার ভোট আলোচনার জন্য পেশ করেছিল বিরোধী ডেমোক্রেটিক পার্টি. বিগত দু দিন ধরে এ নিয়ে বিতর্ক চলেছিল. সরকারকে বরখাস্ত করা নিয়ে ভোটদান অনুষ্ঠিত হয় থাইল্যান্ডে বিরোধীপক্ষের ক্রমাগত প্রতিবাদ আন্দোলনের পটভূমিতে, চতুর্থ দিন বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগের ক্রমাগত অবরোধ চলছে. বর্তমানে বিরোধীপক্ষের জীবন্ত অবরোধ চক্রে রয়েছে সরকারী ভবন সমাহার. মিছিলকারীরা ২০টিরও বেশি রাষ্ট্রীয় সংস্থার কাজ অচল করে রেখেছে. প্রতিবাদ আন্দোলনের অংশগ্রহণকারীরা প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী তাকসিন চিনাওয়াতের সাথে কর্তৃপক্ষের সম্পর্কের বিরুদ্ধে মত প্রকাশ করছে, যিনি, আন্দোলনের সংগঠকদের নিশ্চয়োক্তি অনুযায়ী, অলক্ষ্যে থেকে দেশ পরিচালনা করছেন, এ সত্ত্বেও যে, তিনি বাধ্যতামূলক নির্বাসনে রয়েছেন.