তাছাড়া, তিনি এ বছরের মধ্যে দলিল স্বাক্ষরের জন্য আফগানিস্তানকে আহ্বান জানিয়েছেন. ওয়াশিংটন আফগানিস্তানে নিজের প্রায় ১০ হাজার সৈনিক ও অফিসার রেখে যেতে চায়, যারা আফগান সৈনিকদের প্রস্তুত করবে এবং তাদের সাহায্য করবে “আল-কাইদা” সন্ত্রাসবাদী দলের অবশিষ্টাংশ এবং “তালিবান” আন্দোলনের যোদ্ধাদের বিরুদ্ধে সংগ্রামে. তবুও আফগানিস্তানের রাষ্ট্রপতি হামিদ কার্জাই সর্বসম্মত করা চুক্তির বয়ান আপাতত স্বাক্ষর করতে অস্বীকার করছেন, এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কাছে অতিরিক্ত গ্যারান্টির দাবি করছেন প্রজাতন্ত্রের আভ্যন্তরীন রাজনীতিতে হস্তক্ষেপ না করার এবং দেশের ভূভাগে যে মার্কিনী বাহিনী থাকবে তার ক্রিয়াকলাপ সীমিত করার.