রাষ্ট্রপতি সুসিলো ইয়োদহোইওনো ঘোষনা করেছেন যে, ইন্দোনেশিয়া আঞ্চলিক পরিসরে তার মুখ্য শরিক অস্ট্রেলিয়ার সাথে সহযোগিতার প্রশ্নটি গুরুত্ব সহকারে পুনর্বিবেচনা করা দেখছে. অষ্ট্রেলিয়ার গুপ্তচর বিভাগগুলি ইয়োদহোইওনো ও ইন্দোনেশিয়ার অন্যান্য উচ্চপদস্থ নেতৃবৃন্দের ফোনে কথাবার্তা আড়ি পেতে শোনে, এই সংবাদ দ্রুত ছড়িয়ে পড়ার পরই ইয়োদহোইওনোর এরকম প্রতিক্রিয়া. ফ্রান্স প্রেস সংবাদসংস্থা জানিয়েছে যে, প্রত্যুত্তরে জাকার্তা অস্ট্রেলিয়া থেকে তার রাষ্ট্রদূতকে অবিলম্বে স্বদেশে শলা-পরামর্শ করার জন্য ডেকে পাঠিয়েছে. তাছাড়াও ইন্দোনেশিয়ার রাষ্ট্রপতি অস্ট্রেলিয়ার তরফ থেকে ইলেকট্রনিক গুপ্তচারিতা সম্পর্কে সর্বত্র প্রচারিত খবরের সত্যতাও যাচাই করার কঠোর নির্দেশ দিয়েছেন তার দেশের গুপ্তচর বিভাগগুলিকে. ইয়োদহোইওনোর করা ঘোষনার পরে অনতিবিলম্বে অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী টনি এ্যাব্বট বলেছেন, যে অস্ট্রেলিয়ার গুপ্তচর বিভাগগুলির আড়ি পেতে শোনার প্রচেষ্টায় ইন্দোনেশিয়ার রাষ্ট্রপতিকে উত্যক্ত করার জন্য তিনি আন্তরিকভাবে দুঃখিত.