সবসুদ্ধ নির্বাচকদের সংখ্যা ১ কোটি ২০ লক্ষেরও বেশি. ২০০৬ সালে গৃহযুদ্ধের অবসানের পরে এখন নেপালের এক কক্ষের সংসদের দ্বিতীয়বার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে. ভোটে মুখ্য প্রতিদ্বন্দী তিনটি রাজনৈতিক দল – নেপালি কংগ্রেস(মধ্যপন্থী), মার্কসবাদী-লেনিনবাদী কমিউনিস্ট পার্টি এবং সংযুক্ত মাওবাদী কমিউনিস্ট পার্টি. সংবাদ মাধ্যমগুলির মূল্যায়ণ অনুযায়ী, উপরোক্ত তিনটি দলের কোনোটাই এককভাবে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে না.

এইমাত্র খবর পাওয়া গেল যে, নেপালের রাজধানীতে আজ সকালে একটি বিস্ফোরণে তিনজন জখম হয়েছে. বিস্ফোরণটি ঘটেছে কাঠমান্ডুর একটি আবাসিক পাড়ায়, একটি শিশুও জখম হয়েছে. আপাততঃ এই বিস্ফোরণের দায়ভার কেউ নেয়নি.

২০০৮ সালে সর্বশেষ নির্বাচনে মাওবাদীরা নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাভ করেছিল, কিন্তু ইদানীং তাদের অবস্থা টলমল হয়ে গেছিল. বিশেষতঃ দেশের নাগরিকদের প্রবল অসন্তোষের কারন হয়ে দাঁড়িয়েছে মাওবাদীদের দেশের নতুন সংবিধান প্রণয়ন করার অক্ষমতা.