নিজের ঘাঁটিতে এই জাহাজ হয় জানুয়ারী মাসের শেষে নয়তো ফেব্রুয়ারী মাসের শুরুতে পৌঁছে যাবে. এই জাহাজ “অ্যাডমিরাল গর্শকভ” জাহাজের খুবই বেশী রকমের আধুনিকীকরণের ফল, যা বিক্রী ও আধুনিকীকরণের চুক্তি ভারতের সঙ্গে সম্পন্ন হয়েছিল ২০০৪ সালে. এই জাহাজ আধুনিকীকরণ করার পরে “সেভমাশ” কারখানার কর্তৃত্বের মতে একেবারেই নতুন এক জাহাজ তৈরী করা সম্ভব হয়েছে. এর দিক নির্ণয় ও রেডিও মাধ্যমে স্থান নির্ণয়ের ব্যবস্থা সম্পূর্ণ ভাবেই আধুনিক. বিমানবাহী জাহাজে যোগাযোগের ব্যবস্থা ও বিমান চলাচল নিয়ন্ত্রণের ব্যবস্থাও সর্বাধুনিক. এই জাহাজ পরবর্তী মেরামতের আগে তিরিশ বছর কাজ করার কথা.