রাসায়নিক অস্ত্র নিষিদ্ধ করণ সংস্থার গৃহীত পরিকল্পনা অনুযায়ী সিরিয়ার এলাকা থেকে সমস্ত রাসায়নিক অস্ত্র নিয়ে যাওয়া হবে ২০১৪ সালের ৫ই ফেব্রুয়ারীর মধ্যে ও তা ২০১৪ সালের ৩০শে জুনের মধ্যে নষ্ট করে ফেলা হবে. বাকী থেকে যাবে শুধু আইসোপ্রোপানল, যা জারিন গ্যাস উত্পাদনে কাজে লাগে, ২০১৩ সালের ৩১শে ডিসেম্বরের মধ্যেই সবচেয়ে মারাত্মক বিষাক্ত বস্তু নিয়ে যাওয়া হবে.

সিরিয়ার রাসায়নিক অস্ত্র ধ্বংসের পরিকল্পনা এই সংস্থার সাইটে দেওয়া হয়েছে. তাতে উল্লেখ করা হয়েছে যে, “সিরিয়াতে থাকা রাসায়নিক অস্ত্র উত্পাদনের উপযুক্ত যন্ত্রপাতি ও কাঁচামাল ১৫ই ডিসেম্বর থেকে ১৫ই মার্চ সময়ের মধ্যে নষ্ট করে ফেলা হবে”.

আলবানিয়ার সরকার সিরিয়ার রাসায়নিক অস্ত্র নিজেদের এলাকায় নিতে আপত্তি করার ফলে সংস্থার এখন অল্প সময়ের মধ্যেই কোন বিকল্প জায়গা বের করতে হবে. সেই সমস্ত দেশ, যারা নিজেদের এলাকায় সিরিয়ার রাসায়নিক অস্ত্র গ্রহণ করতে পারে, তার মধ্যে নাম করা হয়েছে ফ্রান্স ও বেলজিয়াম, উল্লেখ করেছে বিবিসি. তার মধ্যেই নরওয়ে সিরিয়া থেকে রাসায়নিক অস্ত্র নিয়ে যাওয়ার প্রসঙ্গে নিজেদের সাহায্য প্রস্তাব করেছে, কিন্তু নিজেদের দেশে এই অস্ত্র ধ্বংস করতে তারা চায় না.