মস্কো মঙ্গলবার ফিলিপাইনের সেবু শহরে পাঠিয়েছে দুটি “ইল-৭৬” মার্কা বিমান, “সেন্ত্রোস্পাস” গ্রুপের এয়ারো-মোবাইল হাসপাতাল, চিকিত্সক এবং উদ্ধার-কর্মীদের নিয়ে. এই দলের নেতৃত্ব করছেন রাশিয়ার বিপর্যয় নিরসন মন্ত্রণালয়ের উপ-প্রধান ভ্লাদিমির স্তেপানোভ. বিপর্যয়-স্থলে রওনা হওয়া উদ্ধার-কর্মী ও চিকিত্সকদের সঙ্গে রয়েছে সমস্ত প্রয়োজনীয় সাজ-সরঞ্জাম, আর তাছাড়া সমস্ত যেতে-পারা মোটরগাড়ি, যাতে স্বতন্ত্রভাবে ঐ পরিবেশে কাজ করতে পারে, বলা হয়েছে বিপর্যয় নিরসন মন্ত্রণালয়ের খবরে. ফিলিপাইনের অধিবাসীদের সাহায্যের খবর এখন অনেক দেশ থেকে পাওয়া যাচ্ছে. জাপানের সরকার এক কোটি ডলার বরাদ্দ করছে ফিলিপাইনের লোকেদের জরুরী ও নিঃস্বার্থ সাহায্য হিসেবে. ক্ষতিগ্রস্তদের জরুরী সাহায্যের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে চীন. ফিলিপাইনের অধিবাসীদের সাহায্যের জিনিসপত্র নিয়ে আসছে মার্কিনী নৌবাহিনীর বিমানবাহী জাহাজ “জর্জ ওয়াশিংটন”. ফিলিপাইনের উদ্ধার-কর্মীদের তথ্য অনুযায়ী, “হাইয়ান” টাইফুনে নিহত হয়েছে প্রায় ১৮০০ জন. আগে প্রচার মাধ্যম জানিয়েছিল যে, নিহতদের সংখ্যা ১০ হাজার পর্যন্ত হতে পারে, তারপরে জাতীয় পুলিশের কর্তা এ খবরের সত্যতা ব্যাখ্যা করার দাবি করেন.