ইস্তাম্বুলে নিজেদের সম্মেলনের ফলাফল সংক্রান্ত বিবৃতিতে তারা নিজেদের সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করেছে. কোয়ালিশন নিজেদের অংশগ্রহণের এ শর্ত উত্থাপন করেছে যে, সরকার যেন দেশের সমস্ত অঞ্চলে মানবতাবাদী সাহায্য পৌঁছোনো সুনিশ্চিত করে, রাজনৈতিক বন্দীদের মুক্ত করে এবং রাজনৈতিক উত্তরণের ব্যবস্থা করে. এ দলিলে আরও উল্লেখ করা হয়েছে যে, কোয়ালিশন সমস্ত বিরোধী দলের সাথে যোগাযোগ রাখবে নিজেদের সিদ্ধান্ত এবং “জেনেভা-২” সম্মেলনের লক্ষ্য ব্যাখ্যা করবে. কোয়ালিশনের নেতৃবৃন্দের একজন প্রতিনিধি সাংবাদিকদের বলেন যে, কোয়ালিশন “জেনেভা-২” সম্মেলনের পরে সিরিয়ার রাষ্ট্রপতি বাশার আসদের পদত্যাগের আশা করে. রাশিয়া মনে করে যে, এ কোয়ালিশন “জেনেভা-২” সম্মেলনে সমস্ত বিরোধী শক্তির প্রতিনিধিত্ব করছে না এবং বিরোধীপক্ষকে আহ্বান জানাচ্ছে একক প্রতিনিধিদল হিসেবে অংশগ্রহণ করতে. সিরিয়ায় পরিস্থিতি মীমাংসা সংক্রান্ত “জেনেভা-২” সম্মেলন আহূত হচ্ছে রাশিয়া ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উদ্যোগে, তার তারিখ এখনও নির্ধারণ করা হয় নি.