এ সম্বন্ধে তিনি বলেছেন সোমবার উরাল অঞ্চলের ইয়েকাতেরিনবুর্গে দু দেশের আন্তঃআঞ্চলিক সম্মেলনের পূর্ণাঙ্গ বৈঠকে. রাষ্ট্রপতি উল্লেখ করেন যে, সমন্বয় সাধনের প্রক্রিয়া ইতিমধ্যে ফল দিচ্ছে, দেখা দেওয়া কাঠিন্য সত্ত্বেও. তিনি জোর দিয়ে বলেন, “দীর্ঘমেয়াদী, প্রণালী ভিত্তিক সমন্বয়ের উপকার যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ, তার নেতিবাচক দিকের তুলনায়”. তিনি মনে করিয়ে দেন যে, রাশিয়ার ৭৬টি অঙ্গ কাজাখস্তানের সব অঞ্চলের সাথে বাণিজ্যিক-অর্থনৈতিক যোগাযোগ রাখছে. কয়েকটি অঙ্গের জন্য প্রতিবেশী দেশ সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ শরিক হয়ে উঠেছে. রাষ্ট্রপতি কাজাখস্তানের অর্থনীতিতে রাশিয়ার বিনিয়োগের বৃদ্ধির কথা উল্লেখ করেন.