“ছয় দেশের” প্রতিনিধিদলে থাকবেন ইউরোসঙ্ঘের বৈদেশিক ব্যাপার ও রাজনীতি সংক্রান্ত হাই-কমিশনার ক্যাথ্রিন অ্যাশটন. রাশিয়ার তরফ থেকে আলাপ-আলোচনায় অংশগ্রহণ করবেন উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই রিয়াবকোভ. ইরানের তরফ থেকে আলাপ-আলোচনায় অংশগ্রহণ করবেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাওয়াদ জারিফ. আগে এ সপ্তাহে ইরানের কূটনীতিজ্ঞ বলেন যে, জেনেভায় আলাপ-আলোচনায় সহমত অর্জন সম্ভব বলে মনে করেন. একই সঙ্গে তিনি বলেন যে, চূড়ান্ত অগ্রগতি যদি না-ও হয়, তাহলেও তা বিপর্যয় হবে না. ইরানের সাথে “ছয় দেশের” আগের পূর্ণপরিসরের আলাপ-আলোচনার রাউন্ড অনুষ্ঠিত হয়েছিল জেনেভায় ১৫-২৬ই অক্টোবর. ঐ আলাপ-আলোচনা উত্সর্গীত ছিল ইরানের পারমাণবিক সমস্যা মীমাংসা সম্পর্কে তেহেরানের দ্বারা প্রস্তাবিত নতুন পরিকল্পনার বিশদ আলোচনার প্রতি. তেহেরানের মতে, অন্তিম লক্ষ্য হওয়া উচিত্ ইরানের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞা বাতিল করা এবং শান্তিপূর্ণ উদ্দেশ্যে ইউরেনিয়াম পরিশোধন করায় তার অধিকারের স্বীকৃতি.