এটি মঙ্গলগ্রহের দিকে পাঠানো প্রথম ভারতীয় জোন্ড. জোন্ড “মঙ্গলায়ন” সম্বলিত “পি.এস.এল.ভি-সি২৫” রকেট যাত্রা শুরু করে শ্রীহরিকোটা কসমোড্রোম থেকে স্থানীয় সময় বেলা ২টা ৩৮ মিনিটে.এই জোন্ডে বসানো আছে কয়েকটি বৈজ্ঞানিক সরঞ্জাম ও মাপ-যন্ত্র: মিথেন গ্যাস অনুসন্ধানের জোন্ড, রঙীন ফোটো তোলার ক্যামেরা, চাপ-বিশ্লেষক এবং স্পেকট্রোমিটার. মঙ্গলবার এ মহাকাশ সরঞ্জাম পৃথিবীর নিকটবর্তী কক্ষপথে বের হবে, আর ৩০শে নভেম্বর, আশা করা হচ্ছে, মঙ্গলগ্রহের দিকে রওনা হবে. ২০১৪ সালের সেপ্টেম্বর মাসে মঙ্গলায়ন লাল গ্রহের এলিপটিক্যাল কক্ষপথে প্রবেশ করবে. ভারতের মহাকাশ গবেষণা সংস্থায় উল্লেখ করা হয়েছে যে, এ ক্ষেপণের প্রধান উদ্দেশ্য হল “আন্তঃগ্রহ মিশনের প্রকল্প প্রণয়ন, পরিকল্পন, নিয়ন্ত্রণ ও বাস্তবায়নের জন্য” প্রয়োজনীয় প্রকৌশলের পরীক্ষা করা.ভারতের মহাকাশ গবেষণা সংস্থায় এ মিশনকে “প্রাকৌশলিক” বলে অভিহিত করা হয়েছে. তাছাড়া এর বৈজ্ঞানিক কর্তব্যও আছে – মঙ্গলগ্রহের পৃষ্ঠদেশ, তার মণিক বিন্যাস ও বায়ুমণ্ডল অধ্যয়ন করা “স্বদেশী সরঞ্জাম ব্যবহার করে”. সব সরঞ্জামের ওজন এক টনের উপর, তার মূল্য প্রায় ২ কোটি ৪০ লক্ষ ডলার. ভারতের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং মঙ্গলগ্রহের দিকে ভবিষ্যত্ মিশনের কথা বলেছিলেন ২০১২ সালের ১৫ই আগস্ট – ভারতের স্বাধীনতা দিবসে. সে সময় তিনি বলেন যে, ভারতের জন্য এ মিশন হবে “বিজ্ঞান ও প্রকৌশলের ক্ষেত্রে এক বিশাল অগ্র-পদক্ষেপ”.