বৃটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী উইলিয়াম হেগ-এর সাথে ভিডিও সম্মেলনের সময় মার্কিনী পররাষ্ট্র সচিব বলেন, “কিছু কিছু ক্ষেত্রে, আমি মানব যে, নিজেদের কিছু কার্যকলাপে তারা মাত্রা ছাড়িয়ে অনেক এগিয়ে গিয়েছিল. আর আমাদের নিশ্চিত হওয়া উচিত্ যে, ভবিষ্যতে এ রকম কিছু আর ঘটবে না”. একই সঙ্গে, কেরি সন্ত্রাসবাদের বিরোধিতায় গোয়েন্দা বিভাগের কার্যকলাপের প্রয়োজনীয়তার সাফাই গান. তাঁর কথায়, এ প্রক্রিয়ায় নির্দোষ কোনো লোক ক্ষতিগ্রস্ত হয় নি, যদিও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র “সমস্ত প্রয়োজনীয় তথ্য সংগ্রহের” চেষ্টা করছে এবং “কিছু কিছু ক্ষেত্রে তা অগ্রহণীয়ভাবে মাত্রা ছাড়িয়ে গেছে”. কেরি এ কথা সমর্থন করেন যে, মার্কিন রাষ্ট্রপতি গোয়েন্দা বিভাগের কার্যকলাপের নীতি এমনভাবে প্রকট ও পুনর্বিবেচনা করতে চান, যাতে কেউ প্রতারিত না হয়. আগে মার্কিনী পররাষ্ট্র বিভাগ স্বীকার করেছিল যে, কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা বিভাগের প্রাক্তন কর্মী এডওয়ার্ড স্নোডেনের দ্বারা প্রচার মাধ্যমকে দেওয়া গোপন সব তথ্য মিত্র দেশগুলির সাথে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পারস্পরিক সম্পর্কে নেতিবাচক প্রভাব বিস্তার করেছে.