কয়েক হাজার দেশবাসীর সাথে তিনিও ২৬ জন প্যালেস্টাইনী বন্দীর সাক্ষাত্ সমারোহে অংশগ্রহণ করেন, যাদের ইস্রাইলী কর্তৃপক্ষ ক্ষমাদান করেছে আঞ্চলিক শান্তি প্রক্রিয়ার পুনরারম্ভ সংক্রান্ত সমঝোতার কাঠামোতে. আব্বাস বলেন, “ইস্রাইলী জেলখানায় বন্দী আমাদের সমস্ত দেশবাসীর মুক্তির জন্য প্রচেষ্টা চালিয়ে যাব”. একুশ জন বন্দী ফিরেছে জর্ডান নদীর পশ্চিম তীরে, আর পাঁচ জন – গাজা অঞ্চলে. তারা জেলে বন্দী ছিল ১৯ থেকে ২৮ বছর, ইস্রাইলীদের হত্যার জন্য. ইস্রাইল মোট ১০৪ জন প্যালেস্টাইনীকে মুক্ত করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে, যারা “সবচেয়ে বেশি সময় জেলে বন্দী ছিল”, ক্ষমাদান কয়েকটি পর্যায়ে বিভাজন করেছে এবং শান্তিপূর্ণ আলাপ-আলোচনায় অগ্রগতির সাথে তার সময় নির্ঘন্ট-কে জড়িয়েছে.