এ সম্বন্ধে বুধবার জানিয়েছে “রয়টার” সংবাদ এজেন্সি. আফগানিস্তানের রাডিক্যাল তালিবান আন্দোলনে দ্বিতীয় প্রভাবশালী ব্যক্তি বারাদার-কে পাকিস্তানের গোয়েন্দা বিভাগ করাচি-তে গ্রেপ্তার করেছিল ২০১০ সালের ফেব্রুয়ারীতে. আফগানিস্তানের প্রচার মাধ্যম আগে জানিয়েছিল যে, সে সময়ে বারাদার গোপন আলাপ-আলোচনা চালাচ্ছিল আফগান সরকারের সাথে, কিন্তু চাইছিল না যে, এ সংলাপে অংশগ্রহণ করুক পাকিস্তানের গোয়েন্দা বিভাগ. সেইজন্যই তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল, উল্লেখ করেছে আফগান প্রচার মাধ্যম. সেপ্টেম্বরের শেষে পাকিস্তানের প্রচার মাধ্যম জানিয়েছিল যে, দেশের কর্তৃপক্ষ মোল্লা গনি বারাদার-কে জেল থেকে মুক্ত করেছে. অক্টোবরের গোড়ায় এ তথ্য সমর্থন করে পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়. এজেন্সির তথ্য অনুযায়ী, এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছিল এর প্রাক্কালে লন্ডনে আফগানিস্তানের রাষ্ট্রপতি হামিদ কার্জাই এবং পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের সাক্ষাতে.