তাঁর কথায়, গোটা একসারি সমস্যা দেখা দিচ্ছে, যা জড়িত এর সাথে যে, বিরোধীপক্ষ পৃথক পৃথক গ্রুপে বিভাজিত হয়ে পড়ছে. আর এই প্রত্যেকটি গ্রুপের “নিজস্ব দৃষ্টিভঙ্গী আছে”, কূটনীতিজ্ঞ বলেন দন তীরের রস্তোভে ইউক্রেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী লেওনিদ কোঝারা-র সাথে যৌথ সাংবাদিক সম্মেলনে. লাভরোভ বলেন, এরই সাথে সাথে সশস্ত্র দলগুলি, যারা আগে সিরিয়ার বিরোধীপক্ষের বিদেশী কর্মীদের নিয়ে গঠিত তথাকথিত “জাতীয় কোয়ালিশনের” সাথে জড়িত ছিল, এখন তাদের সাথে মিলে কাজ করতে অস্বীকার করছে, এবং বলছে যে, তার প্রতি বিশ্বস্ততার প্রতিজ্ঞা করে নি. আর গোটা একসারি দল সোজাসুজিই বলছে যে, তারা “আল-কাইদার” কাছের, এবং তারা, সাধারণভাবে, কার্যকলাপ চালাচ্ছে “আল-কাইদার” নির্দেশে.