এ সম্বন্ধে জানিয়েছে “এন.ডি.টি.ভি” টেলি-চ্যানেল. প্রথম ব্লকটি চালু করা হয়েছে ৩০ শতাংশ ক্ষমতায়. পরে তার ক্ষমতা বাড়ানো হবে. এ ক্ষমতা বৃদ্ধির প্রত্যেক পর্যায়ে প্রয়োজনীয় পরীক্ষা চালানো হবে. এই পারমাণবিক বিদ্যুত্ কেন্দ্রে উত্পাদিত বিদ্যুত্ শুধু তামিলনাডু রাজ্যেই নয় সারা দক্ষিণ ভারতে সরবরাহ করা হবে. এ বিদ্যুত্ কেন্দ্র রুশ-ভারত সহযোগিতার একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্প. তা নির্মিত হচ্ছে রাশিয়ার সাথে প্রযুক্তিগত সহযোগিতায় ১৯৮৮ সালের আন্তঃসরকারী চুক্তি অনুযায়ী এবং তাতে সংযোজন করা হয় ১৯৯৮ সালে. পারমাণবিক বিদ্যুত্ কেন্দ্রের দ্বিতীয় ব্লকের নির্মাণ-কাজ শেষ পর্যায়ে রয়েছে.