ওভাল অফিসে ওই সাক্ষাৎকার অনুষ্ঠানে ওবামার বড় মেয়ে ১৫ বছর বয়সী মালিয়াও উপস্থিত ছিলেন বলে বিবিসি জানিয়েছে।

আম্তর্জাতিক কন্যা দিবস উপলক্ষ্যে ওবামা মালালার সাথে সাক্ষাত করেন

মালালার কাজকে ‘উদ্দীপক এবং উৎসাহব্যঞ্জক’ বলে বর্ণনা করে তাকে ধন্যবাদ দিয়েছেন ওবামা। পাকিস্তানে জঙ্গিদের বিরুদ্ধে ড্রোন ব্যবহার না করার জন্য মালালা ওবামাকে অনুরোধ করেন। ড্রোন হামলায় অনেক নিরীহ মানুষ প্রাণ হারাচ্ছে বলে উল্লেখ করেন মালালা।

উল্লেখ্য, নারী শিক্ষার বিরুদ্ধে তালেবানদের অবস্থান নিয়ে সদা সোচ্চার থাকা মালালা নিজের ১১ বছর বয়সে বিবিসি ব্লগে এ নিয়ে লিখে নজর কেড়েছিল সবার।বৃহস্পতিবার ইউরোপীয় ইউনিয়নের মানবাধিকার পুরস্কার শাখারোভ পান মালালা পাকিস্তানের নারী শিক্ষা আন্দোলনে নিয়োজিত থাকায় মালালাকে ইউরোপীয় পার্লামেন্টের পক্ষ থেকে কৃতজ্ঞতা জানানো হয়

মেয়েশিশুদের শিক্ষার অধিকার নিয়ে সোচ্চার হওয়ায় এবং ব্লগে তালেবানের বিরুদ্ধে লেখালেখি করায় ২০১২ সালের অক্টোবরে জঙ্গিরা স্কুলবাসে উঠে তার মাথায় গুলি করে। ইংল্যান্ডে চিকিৎসা গ্রহণ করে সুস্থ হয়ে ওঠেন তিনি। বর্তমানে ইংল্যান্ডের বার্মিংহামে পরিবারসহ বসবাস করছেন মালালা। সেখানেই একটি স্কুলে লেখাপাড়া চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি।