স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলি জানাচ্ছে যে, এই সিদ্ধান্ত প্রমাণ করে যে, বর্তমানে ক্ষমতাসীন শাসকরা মুশারফের প্রতি উদাসীন নয় এবং তারা বিনা বাধায় তাকে পাকিস্তান ছেড়ে যাওয়ার সুযোগ দিচ্ছে.

এর আগের দিন ঐ সুপ্রীম কোর্টই মুশারফকে ইসলামাবাদের শহরতলীতে শাহেরজাদা চকে অবস্থিত তার বাসভবনে গৃহবন্দী রাখার রায় দিয়েছিল ২০০৭ সালে লাল মসজিদ আক্রমণ করে গণহত্যা করার অপরাধে. কিন্তু তার আগের দিনই ঐ আদালত ২০০৬ সালে বেলুচিস্তানের বিচ্ছিন্নতাকামীদের নেতা আকবর বুট্টোকে হত্যা করার অভিযোগ কিন্তু খারিজ করে দিয়েছে.