উত্তর কোরিয়ার বাহিনী সর্বোচ্চ অধিনায়কমন্ডলীর কাছ থেকে নির্দেশ পেয়েছে “মার্কিনী ও জাপানী আগ্রাসক ও তাদের “হাতের পুতুলদের” গতিবিধির প্রতি নজর রেখে যেকোনো সময়ে প্রত্যুত্তরী আঘাত হানার জন্য সম্পূর্ণভাবে প্রস্তুত থাকার”, জানিয়েছে উত্তর কোরিয়ার কেন্দ্রীয় টেলিগ্রাফ এজেন্সি. উত্তর কোরিয়ার সিদ্ধান্তের কারণ হল যৌথ নৌবাহিনীর মহড়া, যা এ সপ্তাহে শুরু হওয়ার কথা ছিল. এ মহড়া হওয়ার কথা ছিল ৮-১০ই অক্টোবর, তবে টাইফুন শুরু হওয়া উপলক্ষে অনির্দিষ্ট কালের জন্য তা স্থগিত রাখা হয়েছে. দক্ষিণ কোরিয়ার নৌবাহিনীর প্রতিনিধির কথায়, এ মহড়া একেবারেই বাতিল করা হতে পারে, জানিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়ার “ইওনহ্যাপ” সংবাদ এজেন্সি.