এ সম্বন্ধে জানানো হয়েছে রাষ্ট্রসঙ্ঘ এবং রাসায়নিক অস্ত্র নিষেধ সংস্থার মিলিত বিবৃতিতে. রাষ্ট্রসঙ্ঘের তথ্য অনুযায়ী, সিরিয়ায় ধ্বংস করা হয়েছে রকেটের ওয়ারহেড, বিমানের বোমা এবং রাসায়নিক বস্তু মেশানোর সরঞ্জাম, বলা হয়েছে বিবৃতিতে. রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদ এ বছরের ২৭শে সেপ্টেম্বর এক সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে, যা অনুযায়ী এ রাসায়নিক অস্ত্র ধ্বংস করা-কে বাধ্যতামূলক চরিত্র দেওয়া হয়েছে এবং সিদ্ধান্ত পালন না করার ক্ষেত্রে সিরিয়ার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা প্রবর্তন অথবা এমনকি বল প্রয়োগও অনুমিত. গত রবিবার সিরিয়ার রাসায়নিক অস্ত্র ভাণ্ডারের এবং এ অস্ত্র উত্পাদনের জন্য ব্যবহৃত সরঞ্জামেরএকাংশ ধ্বংস করার প্রথম পর্যায় শুরু হয়েছে.