এরকম দুঃখজনক ঘটনার কারণ হিসাবে জানানো হয়েছে যে, গদ্দাফি হত্যা হওয়ার পরে কারাগারগুলি আর সরকারের নিয়ন্ত্রণে ছিল না, ছিল সশস্ত্র অবাধ গোষ্ঠীগুলির অধীনে. তারাই সেখানে ছড়ি ঘোরাতো এবং যা মর্জি তাই করতো.

জাতিসংঘের উপরোক্ত রিপোর্টে জানানো হয়েছে যে, লিবিয়ায় এখনো প্রায় ৮ হাজার লোক কারাবন্দী রয়েছে, যাদের সেই ২০১১ সালে সংঘর্ষের সময় আটক করা হয়েছিল. কিন্তু অধিকাংশের বিরুদ্ধেই এখনো পর্যন্ত তদন্ত পর্যন্ত শুরু করা হয়নি.