ভেনেজুয়েলা নিজের তরফ থেকে ওয়াশিংটনের এ ক্রিয়ার নিন্দা করেছে. ভেনেজুয়েলার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে জোর দিয়ে বলা হয়েছে যে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সিদ্ধান্তকে “পারস্পরিকতা বলে অভিহিত করা যায় না, কারণ ভেনেজুয়েলার কূটনীতিজ্ঞরা কখনও রাষ্ট্রপতি বারাক ওবামার সরকারের বিরোধী গ্রুপের সাথে অথবা সেই সব লোকের সাথে সাক্ষাতে মিলিত হয় নি, যারা মার্কিন সরকারের বিরুদ্ধে ক্রিয়াকলাপ চালাতে আগ্রহী”. সোমবার ভেনেজুয়েলার রাষ্ট্রপতি নিকোলাস মাদুরো তিনজন মার্কিনী কূটনীতিজ্ঞকে বিতাড়নের কথা ঘোষণা করেন, সেই সঙ্গে সাময়িক চার্জ দ্য অ্যাফেয়ার্স-কেও, তাঁর নিশ্চয়োক্তি অনুযায়ী, যিনি ভেনেজুয়েলায় বিদ্যুত্ সরবরাহ ব্যবস্থার অন্তর্ঘাতের সাথে জড়িত ছিলেন. মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র কারাকাসের এ অভিযোগ চূড়ান্তভাবে অস্বীকার করেছে.