এ সম্বন্ধে মঙ্গলবার বলেছেন রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরোভ. তিনি বলেন, “আমরা অগ্রসর হচ্ছি এ থেকে যে, ২১শে আগস্টের ঘটনা একমাত্র ছিল না, যার তদন্ত করার কথা ওকে সেলস্ট্রেমের কমিশনের (রাষ্ট্রসঙ্ঘের পরিদর্শক)”. মন্ত্রী যোগ করে বলেন, “আমাদের কাছে এ তথ্যও আছে যে, ২১শে আগস্টের কুখ্যাত ঘটনায় – যখন ব্যবহৃত হয়েছিল রাসায়নিক অস্ত্র – আর এটি নির্ধারিত ঘটনা – জারিন গ্যাস ব্যবহৃত হয়েছিল, তার এবং ১৯শে মার্চ ব্যবহৃত জারিন গ্যাসের একই উত্পত্তি, শুধু বেশি সংপৃক্ত”. রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ সম্ভাবনা বাদ দেন না যে, সিরিয়ার সশস্ত্র বিরোধীপক্ষের প্রতিনিধিরা “জেনেভা-২” সম্মেলনে প্রতিনিধিত্ব করতে পারে. তিনি মঙ্গলবার ইস্লামিক সহযোগিতা সংস্থার প্রধান সচিব একমেলেদ্দিন ইখসানওগলু-র সাথে আলাপ-আলোচনার ফলাফল সংক্রান্ত সাংবাদিক সম্মেলনে বলেন, “সশস্ত্র বিরোধী পক্ষ যদি চরমপন্থী দৃষ্টিভঙ্গী প্রকাশ না করে, তাহলে তারা অবশ্যই প্রতিনিধিত্ব করতে পারে”.