নি জোর দিয়ে বলেছেন যে, সিরিয়ায় রাসায়নিক অস্ত্র উচ্ছেদের প্রক্রিয়া যখন প্রায়োগিক পর্যায়ে উত্তীর্ণ হবে এবং প্রকল্পগুলির নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করার প্রয়োজনীয়তা দেখা দেবে, তখন রাশিয়া সাহায্য করতে পারে. প্রসঙ্গত, মস্কোর হাতে এ তথ্য আছে যে, ২১শে আগস্ট দামাস্কাসের উপকণ্ঠে ব্যবহৃত জারিন গ্যাস অমার্জিত ভাবে, হাতে তৈরি করা হয়েছিল, আগে বলেছিলেন রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরোভ. সিরিয়ার রাষ্ট্রপতি বাশার আসদ নিজের তরফ থেকে বলেছেন যে, তাঁর কাছে বিরোধী জঙ্গীদের স্বীকৃতি এবং অন্যান্য সাক্ষ্য প্রমাণ আছে যে, সিরিয়ায় রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার করেছিল বিরোধীপক্ষই.