বর্তমানে জাহাজটি ফিরছে শ্বেত সাগরের তীরে সেভেরোদ্ভিনস্ক শহরে “সেভমাশ” কারখানায়, যেখানে তার মেরামত ও আধুনিকীকরণ করা হয়েছে, শুক্রবার জানিয়েছে “ইন্টারফাক্স” সংবাদ এজেন্সি. জাহাজটি সেভেরোদ্ভিনস্ক থেকে রওনা হয়েছিল ৮ই জুলাই. প্রায় এক মাস ধরে তার সমুদ্র-যাত্রার পরীক্ষা হয়েছিল শ্বেত সাগরে. তারপর জাহাজটি যাত্রা করে বারেন্তস সাগরে, সেখানে জাহাজের বিমানের ওঠা-নামার পরীক্ষা করা হয়. আগে রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই শোইগু বলেন যে, “বিক্রমাদিত্য” ভারতকে হস্তান্তর করা হবে এ বছর শেষ হওয়ার আগে. “অ্যাডমিরাল গর্শকোভ” ভারী বিমানবাহী ক্রুজারের আধুনিকীকরণ সংক্রান্ত চুক্তি ভারতের সাথে সম্পাদিত হয়েছিল ২০০৪ সালে. জাহাজটি ফরমাশদাতাকে ফেরত পাঠানোর কথা ছিল ২০০৮ সালে, কিন্তু কাজের পরিমাণ বৃদ্ধির জন্য তা ফেরত দেওয়ার মেয়াদও প্রলম্বন করা হয়.