এ সাক্ষাতে রাশিয়ার অস্ত্রশস্ত্র সরবরাহ এবং আফগানিস্তানের সৈন্যবাহিনী সম্বলিত বিন্যাসের জন্য কর্মীদের প্রস্তুতির বিষয়ও স্পর্শ করা হবে. এ সম্বন্ধে বৃহস্পতিবার সাংবাদিকদের বলেছেন রাশিয়ার রাষ্ট্রপতির সহকারী ইউরি উশাকোভ. তাঁর কথায়, এ সাক্ষাত্ হবে কির্গিজিয়ার রাজধানী বিশকেকে সাংহাই সহযোগিতা সংস্থার শীর্ষ সাক্ষাতের সময়. দু দেশের সম্পর্কের চরিত্রের কথায় এসে ক্রেমলিনের প্রতিনিধি জোর দিয়ে বলেন যে, তা “আস্থা ও মিত্রভাবাপন্ন চরিত্রের”, আর দু দেশের নেতারা নিয়মিত সাক্ষাত্ করেন, সেই সঙ্গে সাংহাই সহযোগিতা সংস্থার শীর্ষ সাক্ষাতের কাঠামোতেও. উশাকোভ যোগ করে বলেন যে, দু দেশের নেতারা তাছাড়া অর্থনৈতিক যোগাযোগ বৃদ্ধির বিষয়ও আলোচনার পরিকল্পনা করছেন, কারণ ২০১২ সালের ফলাফল অনুযায়ী, দু দেশের মাঝে পণ্য-আবর্তন ছিল মাত্র ৯৫ কোটি ডলারের.