গুলজ বলেন, সিরিয়া সরকারের ওপর চাপ প্রয়োগের উপায় হতে পারে বাশার আসাদ সরকারকে অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক দিক দিয়ে কোনঠাসা করে দেয়া। সামরিক আঘাত না করে এই প্রক্রিয়ায় আরো দ্রুত লক্ষ্যে পৌঁছানো যেতে পারে।

যদিও রাশিয়া ও চীন এই প্রস্তাবকে সমর্থন জানায় তাহলে সিরিয়ায় সামরিক হামলা চালানো থেকে বিরত থাকবে মিত্রজোট।

এ্যাডওয়ার্ড স্নোডেনের কারণে রুশ-মার্কিন সম্পর্ক টানাপোড়নের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে, তাই সিরিয়া সংকট নিরসনে ইউরোপকে মধ্যস্থতাকারীর ভূমিকা পালন করা উচিত।