পশ্চিমী দেশগুলির দৃঢ় বিশ্বাস এই, যে গত সপ্তাহে দামাস্কাসের উপকন্ঠে সিরিয়ার শাসকরা রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার করেছিল. ইতিপূর্বে পশ্চিমী প্রতিনিধিরা সাংবাদিকদের জানিয়েছিল, যে তারা রাষ্ট্রসংঘের অনুমতিকে পাশ কাটিয়েই সিরিয়ার উপর আঘাত হানার সিদ্ধান্ত নিতে পারে, যদি নিরাপত্তা পরিষদে ঐক্যমতে পৌঁছানো না যায়. যতদূর জানা গেছে, আগাগোড়া বাশার আল-আসাদকে সমর্থণ করে যাওয়া চীন ও রাশিয়ার প্রতিনিধিরা বৈঠক শেষ হওয়ার আগেই সভাস্থল ছেড়ে গেছেন.

গ্রেট ব্রিটেন, ফ্রান্স ও আমেরিকার প্রতিনিধিরা তার পরেও আলোচনা চালিয়ে গেছেন. বৈঠক শেষে তারা কেউ সংবাদ মাধ্যমের সাথে কথাবার্তা বলতে চাননি.