সামরিক আদালত তাকে সামরিক বাহিনী থেকে বরখাস্ত করে যাবতীয় অঝিকার ও বিশেষ সুবিধা কেড়ে নিয়েছে. তবে ম্যানিং তার জেলে থাকার সময়ের একের তৃতীয়াংশ পার হয়ে গেলে শর্ত সাপেক্ষ ভাবে সময়ের আগেই ছাড়া পাওয়ার জন্য আবেদন করতে পারে. রায়কে দেখা হচ্ছে অনেক নরম হিসাবেই,কারণ প্রথমে বলা হয়েছিল যে, ৯০ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হতে পারে. তাকে ২০১০ সালে ইরাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল, ম্যানিং স্বীকার করেছে যে, ইরাকে হেলিকপ্টার থেকে গুলি করে নিরীহ মানুষ ও রয়টারের সাংবাদিকদের হত্যা করার ভিডিও সেই এই সাইটকে দিয়েছিল. তাছাড়া সে সাইটের কাছে বহু লক্ষ দলিল পাঠিয়েছিল, যা আফগানিস্তানে ও ইরাকে মার্কিন নৃশংসতার প্রতি আলোকপাত করতে পারে. প্রায় আড়াই লক্ষ কূটনৈতিক চিঠিপত্রও সে এই সাইটকে দিয়েছিল.