তাঁর বিরুদ্ধে উত্থাপিত দূর্নীতির অভিযোগ তুলে নেওয়ার পর, জানিয়েছে “রয়টার” সংবাদ সংস্থা. মুবারকের বিরুদ্ধে কয়েকটি মামলা দায়ের করা হয়েছে. কথা হচ্ছে তথাকথিত “প্রাসাদ মামলার”, যার কাঠামোতে মুবারক ও তাঁর ছেলেদের বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলা হয়েছিল ১০০ কোটি পাউন্ড স্টার্লিং আত্মসাত্ করার, যা দেশের বাজেট থেকে বরাদ্দ করা হয়েছিল রাষ্ট্রনেতার বাসভবনের মেরামত ও সার্ভিসের জন্য.