তদন্তের মেয়াদ আপাততঃ দুই সপ্তাহ হলেও, প্রয়োজন পড়লে সিরিয়ার শাসকদের অনুমতিক্রমে সেই মেয়াদ বাড়ানোও যেতে পারে. গত ১৯শে মার্চ আলেপ্পো নগরীর শহরতলীতে বিদ্রোহীরা রাসায়নিক গ্যাস প্রয়োগ করার পরেই সিরিয়ার সরকার কৃত আবেদনে সাড়া দিয়ে রাষ্ট্রসংঘ এই নিরপেক্ষ তদন্তের আয়োজন করেছে. সেই সময় ২৬ জন নিহত হয়েছিল ও আরও ৮৬ জনকে ভুগতে হয়েছিল. খান-এল আসাদের ঘটনা সহ বিশেষজ্ঞদের ওপর তিনটি দুর্ঘটনার তদন্ত করার দায়িত্ব ন্যস্ত করা হয়েছে. আলেপ্পো সফর করা এক দল রাশিয়ান বিশেষজ্ঞ এই সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছেন, যে ওখানকার শহরতলীতে জঙ্গীরা স্বহস্তে বানানো স্নায়ুঅবশকারী জারিন গ্যাস ছেড়েছিল.