তাঁর কথামতো মৃত্যুদণ্ড দেওয়া যেতে পারে শুধুমাত্র আদালতে নিরপেক্ষ বিচারের পরেই. পিল্লাই বিশেষ করে উল্লেখ করেছেন যে, গাজা সেক্টরে ন্যায্য ভাবে মামলা বিচার করা বর্তমানে একেবারেই সম্ভব নয়. তাছাড়া, তিনি যাদের পরে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছে, সেই সমস্ত বিচারাধীন বন্দীদের উপরে দুর্নীতি ও অত্যাচারের খবরে নিজের উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন.

গাজা সেক্টরের প্রধান অভিশংসক ইসমাইল জাবর বুধবারে ঘোষণা করেছেন যে, মৃত্যুদণ্ডের সাজা দেওয়া হয়েছে শুধু সেই সমস্ত অপরাধী ও গুপ্তচরদেরই, যাদের মামলা নিয়ে খুবই খুঁটিয়ে বিচার করা হয়েছে. ২০১৩ সালের জুন মাসে গাজা সেক্টরে শেষ মৃত্যুদণ্ড কার্যকরী করা হয়েছে.