গাতিলোভ বলেন, রাশিয়া বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের সাথে এ সম্মেলনে অংশগ্রহণকারীদের তালিকা চুড়ান্ত করছে। তালিকায় ইরানও রয়েছে বলে তিনি জানিয়েছেন।

তিনি আরো বলেন, সম্মেলনে আলোচনার বিষয়বস্তু সংক্রান্ত প্রশ্নাবলী এখনো ঠিক করা হয়নি। তাছাড়া সিরিয়ার বিরোধী পক্ষ থেকে প্রতিনিধি দলের নাম জানানো হয় নি এমনকি পূর্বশর্ত ছাড়া তারা অংশগ্রহণ করবে কিনা তাও এখনো নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। আগষ্টের শেষের দিকে রুশ-মার্কিন উপপররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ে বৈঠকে এ সংক্রান্ত আলোচনা অনুষ্ঠিত হবে বলে গাতিলোভ জানিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রনালয় জানায়, গত সপ্তাহে মস্কো ওয়াশিংটনের মধ্যে অনুষ্ঠিত দুই প্লাস দুই বৈঠকে সিরিয়া বিষয়ক শান্তি সম্মেলন খুব শীঘ্রই আয়োজনের জন্য সব ধরণের প্রচেষ্টা চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। তবে রাষ্ট্রপতির পদ থেকে যে কোন মূল্যে বাশার আসাদকে সড়ে দাড়াতে হবে বলে পুনরায় ঘোষণা করেছে ওয়াশিংটন। তবে একই সাথে সিরিয়ার সংকট রাজনৈতিক উপায়ে সামাধানের পক্ষে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। ক্ষমতাসীন সরকার কিংবা বিদ্রোহীরা সিরিয়ার পুরো ভূখন্ডের নিয়ন্ত্রণ নেয়ার সামর্থ নেই।