এ বছরের মে মাসে জাকার্তায় মিয়ানমার দূতাবাসে সন্ত্রাসের প্রস্তুতির সন্দেহে, সোমবার জানিয়েছে "জাকর্তা গ্লোব" পত্রিকা. গ্রেপ্তার করা একজন – মুহম্মদ সৈফুল সাবানি অর্থ সংগ্রহ করছিল সন্ত্রাস চালানোর জন্য. আগে বিশেষ বাহিনী রাজধানীর কেন্দ্রস্থলে দুজন মোটর-সাইকেল চালককে গ্রেপ্তার করে, যাদের হ্যাভার-স্যাকে পাওয়া যায় বিস্ফোরক বস্তু এবং রিমোট বিস্ফোরণের তার. গ্রেপ্তার করা ব্যক্তিদের বাড়িতে পাওয়া যায় অন্যান্য বিস্ফোরক বস্তু. এ সন্ত্রাসের আরও দুজন অংশগ্রহণকারী – রোহাদি এবং সিগিত ইন্দ্রজীত-কে ধরার জন্য পরোয়ানা জারি করা হয় এবং তাদের গ্রেপ্তার করা হয় মে মাসের শেষ দিকে. পুলিশের মতে, গ্রেপ্তার করা শেষ দুজন ৫ই আগস্ট জাকার্তায় “একায়ন” বৌদ্ধ মঠে বিস্ফোরণের সাথে জড়িত থাকতে পারে, যার ফলে একজন সামান্য আহত হয়েছিল.