এ সম্বন্ধে বলা হয়েছে “ভাষা” (ভাষা রিসার্চ অ্যান্ড পাবলিকেশন সেন্টার) গবেষণা কেন্দ্রের রিপোর্টে. এ বিষয়ের গবেষক গণেশ দেবের কথায়, ১৯৬১ সালে ভারতে লোকে কথা বলত ১১০০টি ভাষায়, আর ২০১৩ সালে তার সংখ্যা কমেছে ২২০টি. গণেশ দেব সঠিক করে বলেন যে, এই লুপ্ত ভাষাগুলির অনেকগুলিতেই কথা বলত সাপুড়েরা, ভাগ্য গণনাকারীরা, ওঝা ইত্যাদি-রা. তিনি যোগ করে বলেন ভারতের জনসংখ্যার ৩-৪ শতাংশ এ সব ভাষায় কথা বলতে পারত. ভারতের সংবিধানে সূত্রবদ্ধ আছে যে, জাতীয় সরকারের কাজের ভাষা হল হিন্দি এবং ইংরেজী, তবে রাজ্য সরকারগুলি প্রশাসনিক উদ্দেশ্যে ব্যবহার করতে পারে ২২টি ভাষা, যেমন তামিল, বাংলা, উর্দু ইত্যাদি.