রাশিয়া ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও প্রতিরক্ষামন্ত্রীদের সাক্ষাতে সেই সব প্রশ্ন আলোচিত হবে, যেগুলিতে তাদের মাঝে মতভেদ আছে. রাশিয়ার উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী রিয়াবকোভের কথায়, “আলাপ-আলোচনা চালানো হবে, সর্বপ্রথমে, সামরিক-রাজনৈতিক সমস্যা এবং অস্ত্রসজ্জার নিয়ন্ত্রণের উপর জোর দিয়ে”. বিশেষ মনোযোগ দেওয়ার পরিকল্পনা আছে রকেটবিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার সমস্যার প্রতি, যা দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে একটি গুরুতর বিরক্তির বিষয় হিসেবে বজায় রয়েছে. আসন্ন সাক্ষাতের আলোচ্য সূচিতে তাছাড়া আছে আন্তর্জাতিক বিষয়: সঙ্ঘর্ষ, সঙ্কটজনক পরিস্থিতি, সেই সঙ্গে সিরিয়া এবং আফগানিস্তানের পরিস্থিতিও. এ সম্ভাবনাও বাদ দেওয়া যায় না যে, পক্ষদ্বয় ইরান সম্পর্কেও মত-বিনিময় করবে.মার্কিনী পররাষ্ট্র বিভাগের প্রতিনিধি জেন প্সাকি সাংবাদিকদের বলেছেন যে, “২+২” সাক্ষাতে স্নোডেন বিষয়টি অবশ্যই আলোচনার এক অংশ হবে.প্রসঙ্গত, রাশিয়ার উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই রিয়াবকোভের মতে, উক্ত প্রশ্নে আলোচনার বিষয়বস্তু নেই.